লাইফস্টাইল

গ্রিন টি কি ? গ্রিন টি কিভাবে খেতে হয়

গ্রিন টি এমন এক ধরনের চা যা ক্যামেলিয়া সাইনেসিস পাতা থেকে তৈরি করা হয়। গ্রিন টি এর উৎপত্তি চিনে। বর্তমানে সারা বিশ্বে বহুল প্রচলিত এই গ্রিন টি সবচেয়ে বেশি খাওয়া হয় ডায়েট করার ক্ষেত্রে। গ্রিন টি খেলে মেদ কমে এমন ধারণা অনেকেরই আছে। গ্রিন টি কিভাবে খেতে হবে সে সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। গ্রিন টি সঠিকভাবে না খেলে স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকার এর বদলে ক্ষতি ডেকে আনতে পারে। তাই গ্রিন টি শুধুমাত্র খেলেই হবে না সঠিক নিয়মে এবং সঠিক সময়ে পান করতে হবে।

গ্রিন টি অতিরিক্ত পান করা ঠিক না আবার সাধারণ চা আমরা যে সকল সময়ে খায় সে সকল সময়ে গ্রিন টি খাওয়া উচিত নয়। গ্রিন টি এবং সাধারন যা সম্পূর্ণ দুইটা আলাদা পানিও। সাধারণ চা এবং গ্রিন টি চা হলেও কাজ এবং গুনাগুন এর দিক সম্পূর্ণ আলাদা। গ্রিন টি আপনার ডায়েটে সাহায্য করে এবং এর অনেক ঔষধি গুনাগুন রয়েছে। স্বাস্থ্যের জন্য গ্রিন টি এর কোন খারাপ প্রভাব পড়ে না যা সাধারণ চাকরির ক্ষেত্রে পরে। তবে সাধারণ চা যেভাবে পান করা হয় অর্থাৎ ঘুম থেকে উঠে কিংবা ঘুমাতে যাওয়ার পূর্বে গ্রিন টি এভাবে পান করলে তা স্বাস্থ্যের জন্য বয়ে আনতে পারে ক্ষতি।

গ্রিন টি আমাদের শরীরে জারিত হয় না যেমনটা হয় অন্যান্য সাধারণ চা এর ক্ষেত্রে। আর এই জন্যই গ্রিন টি অন্যান্য চায়ের তুলনায় স্বাস্থ্যকর। গ্রিন টি এর সবচেয়ে উপকারী গুণ হলো এটি কোন খারাপ কোলেস্টরেল জমতে দেয়না। খারাপ কোলেস্টেরল রক্তনালিতে জমলে রক্ত সঞ্চালনে বাধা হয়ে যায় যার কারণে শরীর এর ক্ষতি হয়। যেহেতু গ্রিন টি কোলেস্টরেল জমতে দেয়না সে কারণে এটি শরীরের জন্য কোনো ক্ষতি করে না বরং কোলেস্টরেল জমতে না দেওয়ায় ফ্যাট ধরতে সাহায্য করে। এছাড়াও গ্রীন কি ত্বক ও চুলের জন্য খুব উপকারী।

বাজারে বিভিন্ন ধরনের ও ফ্লেভারের গ্রিন টি পাওয়া যায়। কিছু গ্রীন কি রয়েছে যেগুলো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কারণ সেগুলো অর্গানিক নয়। যারা নিয়মিত গ্রীন টি পান করে তাদের অবশ্যই জানতে হবে কোনগুলো ক্ষতিকর গ্রিন টি এবং কোনগুলো অর্গানিক গ্রিন টি। অবশ্যই গ্রিন টি সম্পূর্ণ সবুজ হবে না কিছুটা হলুদ ভাব থাকবে। গ্রিন টি খেতে খুব একটা সুস্বাদু না হলেও কচি ঘাসের মতো গন্ধ পাওয়া যাবে। টি-ব্যাগ অবশ্যই এড়িয়ে চলা উচিত তবে বর্তমানে যেহেতু বাজারের ম্যাক্সিমাম গ্রিন টি টি ব্যাগ এর মাধ্যমে বিক্রি হয় সে ক্ষেত্রে ভালো ব্র্যান্ডের গ্রিন টি পান করতে হবে। গ্রিন টি চা মিশিয়ে খাওয়া উচিত নয়। গ্রিন টি এবং সাধারন চা সম্পূর্ণ আলাদা দুটি উপকরণ দিয়ে তৈরি তাই কখনো দুটি একসাথে মিশিয়ে খাবেন না। এতে উপকারের চেয়ে বেশি ক্ষতি হতে পারে। গ্রিন টি কাঁচের পাত্রে রাখা সবচেয়ে ভালো।

গ্রিন টি কিভাবে খাওয়া উচিত

গ্রিন টি তে দুধ মিশিয়ে খাওয়া যেতে পারে তবে এতে করে খেতে সুস্বাদু হলেও উপকার এর মাত্রা কমে যায়। তাই সম্ভব হলে এড়িয়ে চলতে হবে। হালকা ব্যায়াম কিংবা ওয়ার্ক আউটের পরে গ্রিন টি পান করা যায়। গ্রিন টি পান করার সময় চিনি মেশান উচিত নয় তবে যাদের ছাদ পছন্দ নয় তারা কিছুটা চিনে নিতে পারেন তবে অতিরিক্ত চিনি নেওয়া যাবে না।

গ্রিন টি সঠিকভাবে বানানোর পদ্ধতি

পানি গরম করে নিতে হবে একটি পাত্রে। পানি গরম হয়ে গেলে কাপের অর্ধেক পরিমাণ পানি নিতে হবে। 1 চা-চামচ গ্রিন টি অথবা একটি টি ব্যাগ দিতে হবে কাপের মধ্যে। এবার কিছু সময়ের জন্য গ্রিন টি কে ঢেকে রাখতে হবে। এক মিনিট গ্রিন টি ঢেকে রাখার পরে তা খাবার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে।

গ্রিন টি অবশ্যই সঠিক নির্দেশনা মোতাবেক পান করতে হবে। গ্রিন টি পান করার অনেক সুফল এবং উপকারিতা থাকলেও খেয়াল রাখতে হবে  গ্রিন টি সঠিক নিয়ম অনুসারে পান করা হয়। গ্রিন টি যারা পান করতে চান এবং মেদ কমাতে চান তারা অবশই সঠিক নিয়মগুলো দেখে নিবেন এবং সাধারন চায়ের মতো পান করবেন না । অরগানিক গ্রিন টি পান করতে হলে অবশই দেখেশুনে ঘিন টি কিনতে হবে এবং ভালো ব্রান্ডের গ্রিন টি পান ক

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button