প্রযুক্তি

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট কি? কিভাবে একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করবেন – জেনে নিন

টার্গেট ক্লায়েন্ট নির্ধারণের পর আপনার নিজেকে চেনানোর জন্য একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট এবং আপনার একটি প্রোফাইল খুবই জরুরী। একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট আপনার ক্লায়েন্টকে আপনার সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবে। পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট থেকে আপনাকে জানতে পারবেন আপনার পূর্বের কাজ, আপনি কতটুকু দক্ষ, আপনি কতটুকু বিশ্বস্ত। পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করা খুব একটা কঠিন না এবং আপনি খুব সহজেই আপনার জন্য একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরী করে নিতে পারবেন যা আপনাকে সাহায্য করবে পরবর্তীতে আপনার ক্লায়েন্ট খুঁজে পেতে।

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করে

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট আপনার ব্যক্তিগত যা আপনার পেশাগত সাফল্যকে নির্দেশ করে। পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট দেখে আপনার ক্লায়েন্ট আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। আপনার ক্লায়েন্ট যে সমস্ত পরিষেবাগুলি চাচ্ছেন সে পরিষেবাগুলি যদি তিনি আপনার কাছে থেকে সে সমস্ত পরিষেবাগুলি পায় এবং আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট থেকে যদি আপনার রিভিউ গুলো দেখে সে সন্তুষ্ট হয় তাহলে আপনার সাথে এসে যোগাযোগ করতে পারে। এটি আপনাকে ক্লায়েন্ট খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট এর আরেকটি সুবিধা এটি আপনাকে অথবা আপনার ব্র্যান্ড এর প্রচারে কাজ করে।

আরো দেখুনঃ  ২০২২ সালে ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করার সেরা পদ্ধতিগুলো - জেনে নিন

একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট এ কি কি থাকতে হবে

একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইটে আপনি যে সমস্ত বিষয়গুলি রাখতে পারেন তা হলো,

  • আপনার সেরা কাজগুলো
  • যোগাযোগের তথ্য
  • আপনি যে ধরনের কাজ করেন তার বর্ণনা

আপনার সেরা কাজ

পূর্বে আপনি যে সমস্ত অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন অথবা যে সমস্ত কাজ করেছেন ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে সেগুলো আপনি আপনার পোর্টফোলিও তে আপনার হিসেবে রেখে দিতে পারেন। অতিরিক্ত কাজের উদাহরণ শেয়ার করা যাবে না এবং আপনার সেরা কাজগুলি শুধুমাত্র শেয়ার করবেন।

আপনি যে ধরনের কাজ করেন

আপনি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপনার ক্লায়েন্টকে কি ধরনের পরিষেবা প্রদান করেন অথবা কি ধরনের অফার করেন তা জানাতে পারেন। কি ধরনের কাজ করে তা প্রদর্শন করে রাখতে পারবেন আপনার পোর্টফোলিও তে।

যোগাযোগের তথ্য

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট যে ব্যাক্তি ভিজিট করবে অথবা যে ক্লায়েন্ট ভিজিট করবে আপনার সাথে যোগাযোগের সুযোগ পায় সে কারণে আপনার যোগাযোগের তথ্য সেখানে তুলে ধরতে পারবেন। যোগাযোগের তথ্য দেখে আপনার ক্লায়েন্ট আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারবে।

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করবেন যেভাবে

পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে কয়েকটি বিষয় লক্ষ্য করতে হবে এবং আপনাকে একটু ওয়েব বিল্ডার অথবা ডিজাইন করতে হবে। টিপি আপনার কনটেন্ট গুলো সাজিয়ে নিতে হবে। এসইও এর মাধ্যমে আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইটি সবার সামনে নিয়ে আসতে পারবেন। যা আপনার ক্লায়েন্ট পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়িয়ে দেয়। তাই এসইও প্রমোট করতে হবে। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন আপনি করতে পারবেন অথবা এসইও এর জন্য কোন এসইও স্পেশালিস্ট এর সাহায্য নিতে পারেন।

একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় খুব সহজে । নিচের পদক্ষেপ গুলো নিয়ে আপনি নিজেই নিজের জন্য একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারবেন। 

  • অনুপ্রেরণা সংগ্রহ করতে হবে
  • একটি টেমপ্লেট বেছে নিতে হবে
  • আপনার সেরা প্রকল্পগুলি সেই পোর্টফলিও এর অন্তর্ভুক্ত করতে হবে
  • উচ্চ মানের ছবি ব্যবহার করতে হবে
  • সঠিক বিষয়বস্তু এবং বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভুক্ত করতে হবে
  • আপনার পোর্টফোলিওর UX উন্নত করতে হবে
  • আপনার সাইটের এসইওতে কাজ করতে হবে
  • এটি মোবাইল বন্ধুত্বপূর্ণ করতে হবে
  • সৎ প্রতিক্রিয়া জন্য জিজ্ঞাসা করতে হবে
  • প্রকাশ এবং প্রচার হলো একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার সর্বশেষ ধাপ। 

এভাবে আপনি তৈরি করতে পারবেন একটি পোর্টফলিও অয়েবসাইট।যা আপনার আপনার ব্রান্ড অথবা আপনাকে প্রকাশ করে । পোর্টফলিও ওয়েবসাইট আপনার প্রতি আপনার ক্লায়েন্ট এর আস্থা আরো বারিয়ে দেয়।

আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনি একটি ফ্রিল্যান্সারের সাহায্য নিতে পারেন অথবা আপনি নিজেও পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন যদি আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কে ধারনা থাকে তাহলে। তবে ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট না জানলে আপনার ওয়েবসাইট তৈরির জন্য একটি ফ্রিল্যান্সার নিয়োগ করেন। একজন ফ্রীল্যান্সার আপনাকে আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট তৈরি করে দিবে এবং এজন্য আপনাকে সেই ফ্রিল্যান্সারকে আপনার কনটেন্ট এবং কি ধরনের ওয়েবসাইট যাচ্ছে সেটি বুঝিয়ে দিতে হবে।

ক্লায়েন্ট পাওয়ার ক্ষেত্রে পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট অনেক বেশী কার্যকর। ক্লায়েন্টের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার জন্য আপনার পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট এর ডিজাইন সুন্দর করতে হবে। পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট দেখে আপনার ক্লায়েন্ট আপনার সাথে যোগাযোগ করবে এবং সেই কারণেই ফাস্ট ইম্প্রেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যোগাযোগ এর অবশ্যই সহজতা হবে যেন আপনার ক্লায়েন্ট আপনার সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে কোন ঝামেলার শিকার না হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button