স্বাস্থ

২০২২ সালের সেরা ডায়েট কোনগুলো – জেনে নিন

একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েট এবং নিয়মিত শারীরিক ক্রিয়া-কলাপ জীবনে আরো বেশি জায়গা করে নেয়। কারণ শুধুমাত্র যারা স্বাস্থ্যকর, সুষম ডায়েট এবং ব্যায়াম করেন তারা বৃদ্ধ বয়সেও অনেক ফিটনেস থাকেন। নতুন বৎসরের  শুরুতেই সকলেই কিছু না কিছু শপথ নেন। আর তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি থাকে ফিটনেস সংক্রান্ত শপথ।

প্রতিবছরই  নভেম্বর – ডিসেম্বর মাস আসলেই অনেকেই চিন্তা করেন যে নতুন বছর থেকে শরীরে ফিটনেসের প্রতি যত্নবান হবে, শরীর থেকে বাড়তি ওজন ঝরিয়ে স্লিম হব। আর এজন্যই জানুয়ারি মাসে জিমে জিমে পড়ে যায়। তবে সকলেই ভাবে কিভাবে মাত্র সাত দিনের পরিশ্রমেই ঝরে যাবে শরীরের অতিরিক্ত ওজন। কিন্তু এক সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই ফুরিয়ে আসে সব এনার্জি।

সাতদিন ধরে সকল ধরনের খাবারের লোভ সংবরণ করে রাখা ব্যক্তিটি অষ্টম দিন থেকে গো গ্রাসে খাওয়া-দাওয়া শুরু করেন। এতে শরীর আরো বেশি খারাপ হয় সেই সঙ্গে রোজকার পরিচিত  রুটিনের ছেদ পড়ায় শরীর আরো বেশি তাড়াতাড়ি খারাপ হয়ে যায়। আজকাল ইন্টারনেটেই নানারকম ডায়েট চার্ট পাওয়া যায়। যে কারণে অনেকেই কোন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ না নিয়ে নিজের মতো করে যেকোনো একটি ডায়েট মেনে চলা শুরু করেন। কিন্তু শরীরের জন্য এটা ভালো না, তাই নতুন বছরে দূরে থাকুন এসব ডায়েট থেকে।

যেসকল ডায়েটে শরীরে বেশি আস্যিড তৈরি হয়

এমন কোন ডায়েট মেনে চলা ঠিক না যা থেকে শরীরে বেশি এসিড তৈরি হয়। অনেকে ডায়েট এর মধ্যে মাছ ও মাংসের পরিমাণ বেশি রাখেন। এতে শরীরে এসিডের পরিমাণ বেড়ে যেতে পারে। তাই ডায়েটে মাছ মাংসের পরিমাণ কম রেখে ফলমূল-সবজির পরিমাণ বাড়িয়ে দেওয়া উচিত। এমনকি ডিম ও দুগ্ধজাত খাবার ও ডায়েটে কম রাখবেন।

ভালো ফ্যাট খান কিন্তু তার পরিমাণ যেন খুবই কম হয়:- মহিলাদের জন্য সবসময় বলা হয় ডায়েট থেকে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ একদম কমিয়ে প্রোটিন,  শস্য দানা এবং ভাল ফ্যাট খাওয়ার জন্য। ওমেগা -৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার বেশি খাওয়ার জন্য। এতে মহিলাদের প্রজনন ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। কার্বোহাইড্রেট কম খাওয়া শরীরের জন্য ভালো, ওজন কমাতেও সাহায্য করে। কিন্তু এই ডায়েট মানলেই যে প্রজনন ক্ষমতা বাড়বে তার কিন্তু কোনো প্রমাণ নেই।

লিকুইড ডায়েট নয় :- এক সপ্তাহ না খেয়ে থাকলেই রোগা হওয়া যায় না, আবার কম খেলে কিংবা পুরোপুরি লিক্যুইড ডায়েট করলেও রোগা হওয়া যায় না। এর জন্য  নিয়ম মেনে চলতে হয় এবং সেই নিয়ম হল সঠিক।

ঝুঁকিহীন ২০২২ সালের সেরা ডায়েট সমূহ

ফ্লেক্সিটারিয়ান ডায়েট

ফ্ল্যাক্সিটারিয়ান ডায়েট নিরামিষ। এই ডায়েট দীর্ঘসময়ের জন্য সহজেই অনুসরণ করা যেতে পারে। এই খাদ্য প্রবণতা মানুষকে উদ্ভিদ – ভিত্তিক খাদ্যপণ্য খেতে এবং সংযম পরিমাণে প্রাণী – ভিত্তিক খাদ্যপণ্য খেতে উৎসাহিত করে। এই ডায়েট অনুসরণ করার সময় ক্যালোরি গ্রহণের ব্যাপারে কোনো বাধ্যবাধকতা থাকে না । শুধুমাত্র এই কারণে, এই খাদ্যটি একটি ডায়েট এর চেয়ে  একটি জীবনধারার প্রবণতা হয়ে উঠেছে। যাতে লোকদের ফল, শাকসবজি, লেবু, গোটা শস্য, উদ্ভিদ ভিত্তিক খাবার খেতে হয়। এটি ওজন কমানোর ডায়েট এর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি ডায়েট। ধীরগতির এবং স্থির ওজন কমানোর জন্য যারা খুঁজছেন তাদের জন্য এটি একটি দুর্দান্ত ডায়েট। এই ডায়েট সম্পন্ন বিজ্ঞানভিত্তিক, অংশ নিয়ন্ত্রণ, খাদ্য পছন্দ এবং ওজন কমানোর উপর জোর দেয়।

ভেগান ডায়েট

বেশিরভাগ মানুষ নৈতিক, পরিবেশগত বা স্বাস্থ্যকর কারণে নিরামিষ খাবার খায়। কিন্তু সঠিকভাবে অনুসরণ করলে, এই ডায়েট আপনাকে কয়েক কিলো ওজন কমাতে সাহায্য করতে পারে এবং আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এই খাদ্যতালিকায় দুগ্ধজাত খাবার সহ প্রাণীজ খাবার খাওয়া কমাতে হবে।  কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায়, দীর্ঘদিন এই ডায়েটে থাকার ফলে শরীরের পুষ্টির ঘাটতি দেখা দেয়। যারা নিরামিষাশী ডায়েট অনুসরণ করে তারা শূন্য ক্যালরি ডায়েট অনুসরণ কারীদের তুলনায় বেশি ওজন হ্রাস করে।

ভলিউমেট্রিক ডায়েট

ভলিউমেট্রিক ডায়েট মানে হল খাবারের প্লেটে  কম ক্যালোরি সহ সম্পূর্ণ  পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার হওয়া উচিত। এই ডায়েট অনুসরণ করার সময় প্রচুর পানি এবং ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে। সর্বোত্তম অংশ হলো এই খাদ্যটি অন্য কোন খাবারের উপর বিধিনিষেধ আরোপ করে না। তবে ক্যালোরি গ্রহণ সীমিত করার সময় মানুষকে নিয়মিত ব্যায়াম করতে উৎসাহিত করে। এই ডায়েট এর মূল উদ্দেশ্য হলো, মানুষের মধ্যে ভালো অভ্যাস গড়ে তোলা এবং জীবনযাত্রায় পরিবর্তন আনা। এই ডায়েট মেনে চললে এক সপ্তাহে ১ থেকে ২ পাউন্ড ওজন কমানো সম্ভব।

মায়ো ক্লিনিকের ডায়েট

মায়ো ক্লিনিক এর ডায়েট ওজন কমানোর জন্য খুবই কার্যকর বলে দেখানো হয়েছে। মায়ো ক্লিনিক এর বিশেষজ্ঞদের দ্বারা তৈরি ডায়েট জগারদের নতুন অভ্যাস গ্রহণ করতে এবং পুরনো অভ্যাসগুলি ভাংতে সহায়তা করে। আপনাকে দীর্ঘ সময় ফিট রাখতে এই ডায়েট খুবই উপকারী বলে প্রমাণিত হয়েছে। এতে ব্যক্তিকে ফলমূল, শাকসবজি খাওয়ার পাশাপাশি শারীরিক ক্রিয়া-কলাপ করার দিকে মনোনিবেশ করতে হবে।

আপনি যদি ওজন কমানোর পরিকল্পনা করে থাকেন, তাহলে উপরে উল্লেখিত ২০২২সালের সেরা ডায়েট গুলো অনুসরণ করার চেষ্টা করুন। এ ডায়েটগুলো করার সময় অবশ্যই আপনার ওজন কমানো ফলপ্রসূ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button