প্রযুক্তি

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খোলা যায় – জেনে নিন

 

ইউটিউব বর্তমানে ভিডিও শেয়ার করার সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম। যারা নিয়মিত ইউটিউব ভিডিও অভ্যস্ত তারা নিজেরাও অনেক সময় ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চাই। ইউটিউব থেকে এখন ইউটিউব ভিডিও শেয়ার করে টাকা ইনকাম করা যায় বলে এটি আরো বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ইউটিউবে আমরা যে সকল ভিডিও দেখি সেগুলো হয়তো কেউ না কেউ তৈরি করেছে। কোন চ্যানেল তৈরি করেছে নিচের নাম দেখে আমরা তা জানতে পারি। ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার জন্য কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে সেগুলো এখানে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

ইউটিউব চ্যানেল দুই ধরনের হয় একটি ব্যক্তিগত অন্যটি বাণিজ্যিক। আপনি নিজেও হয়তো ব্যক্তিগত অথবা বাণিজ্যিক ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারবেন এবং আপনার তৈরি করা ভিডিও সেই চ্যানেলে আপলোড করতে পারবেন । ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন এর মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেল থেকে আর্নিং করা সম্ভব। মনিটাইজেশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা রয়েছে এই ওয়েবসাইটে। ইউটিউব চ্যানেল আপনি রাজনীতি, খেলা, অর্থনীতি এবং শিক্ষামূলক বিভিন্ন ভিডিও দেখতে পারবেন এবং শেয়ার করতে পারবেন। ইউটিউব চ্যানেল এর মাধ্যমে স্বাবলম্বী হতে পারেন অনায়াসে। বর্তমানে অনেক ইউটিউবার ইউটিউব থেকে আর্নিং করে স্বাবলম্বী হয়েছে।
ইউটিউব চ্যানেল কি

আরো দেখুনঃ  ইউটিউব থেকে আয় করা যায় কিভাবে - জেনে নিন

 

ইউটিউব চ্যানেল খোলার পদ্ধতি

চ্যানেল হলো এমন একটি চ্যানেল যে চ্যানেল এর মাধ্যমে আপনি ইউটিউব প্লাটফর্মে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন আপনার তৈরি করা ভিডিওটি ইউটিউব প্লাটফর্মে শেয়ার করতে পারবেন। ইউটিউব চ্যানেল খোলার পূর্বে ইউটিউব চ্যানেল সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে কারণ আপনি যদি না জেনেই ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলেন তাহলে তথ্যের অমিল এর জন্য অনেক সময় আপনার রানিং ইউটিউব চ্যানেলটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে। আপনি যে কোন ভাষাতে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন অথবা যেকোন বিষয় ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন তবে অবশ্যই আপনার একটি নির্দিষ্ট বিষয় সিলেক্ট করে ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে হবে।
যদি ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য অথবা পরবর্তীতে মনিটাইজেশনের কোন ইচ্ছা না থাকে তাহলে আপনি যেকোন ভাবেই ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন কিন্তু যদি এখনই মনিটাইজেশন নিতে চান অর্থাৎ গুগল এডসেন্স এ কানেক্ট করতে চান আপনার ইউটিউব চ্যানেল তাহলে অবশ্যই আপনাকে ইউটিউব চ্যানেল খোলার যেসব কোন স্টেপ গুলো রয়েছে সেগুলো ভালোভাবে জেনে এরপরে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হবে।

ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য কি কি দরকার হয়

ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য প্রথমত আপনার একটি জিমেইল আইডি প্রয়োজন হবে যে জিমেইলে পূর্বে কোন ইউটিউব চ্যানেল ছিল না। অবশ্যই জিমেইল আইডিটি আপনার হতে হবে। কমার্শিয়াল ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারবেন।

আরো দেখুনঃ  ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করবেন যেভাবে - জেনে নিন

ইউটিউব চ্যানেল খোলার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ

  • প্রথমে youtube.com ওয়েবসাইটে অর্থাৎ ইউটিউবে প্রবেশ করতে হবে।
  • এরপরে লগইন করতে হবে আপনার জিমেইল আইডি ব্যবহার করে
  • ইউটিউব ইন্টারফেসে উপরের ডান কোনায় আপনার জিমেইল চিহ্নিত স্থানে ক্লিক করলেই ইউটিউব এর অপশন গুলো পাওয়া যাবে।
  • ক্রিয়েট এ চ্যানেল অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • যে নাম ব্যবহার করে আপনি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চান সে নাম সিলেক্ট করতে হবে।
  • একটি মেসেজ শো করবে অর্থাৎ ইউটিউব টার্মস অফ সার্ভিস এর সাথে সংহতি প্রকাশ করছেন কিনা সেটি জানতে চাওয়া হবে।
  • আপনি ইচ্ছা করলে ইউটিউবে টার্মস অব সার্ভিসেস নোটিশ পড়তে পারবেন এই পৃষ্ঠা হতে।
  • সবকিছু ঠিক থাকলে ক্রিয়েট চ্যানেল বোতামে ক্লিক করলেই আপনার ব্যক্তিগত চ্যানেলটি রেডি হয়ে যাবে ।

মোবাইলে ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম

মোবাইলে ইউটিউব চ্যানেল খোলা কিছুটা জটিল হলেও সম্ভব। সাধারণত কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ ব্যবহার করে ইউটিউব চ্যানেল খোলা সহজ হয় কিন্তু মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খোলা যায়। মোবাইল দিয়ে কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হবে তা এখানে বর্ণনা করা হলো।
মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল খোলার ক্ষেত্রে সবচেয়ে সমস্যা হয় যেটি সেটি হল ইউটিউব চ্যানেল খোলার অপশন না পাওয়া। সে ক্ষেত্রে অন্যান্য সকল বিষয় না জানলেও যেটি জানতে হবে তা হল। প্রথমে ক্রোম ব্রাউজার ইউজ করে youtube.com প্রবেশ করুন। ক্রোম ব্রাউজার টি ডেক্সটপ মোড করে নিন। এখন আপনার ক্রোম ব্রাউজার একটি কম্পিউটার ডেস্কটপ এর মত হয়ে গেছে ওপরে যে নিয়ম গুলো বলা হয়েছে ইউটিউব চ্যানেল খোলার জন্য এখন আপনি সে পদক্ষেপগুলো নিতে পারবেন। 

 

উপরের নিয়ম অনুসারে আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলতে পারবেন খুব সহজেই। নিয়মিত ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেলটিকে অনেক প্রসারিত করতে পারবেন এবং পরবর্তী তে মনিটাইজড করে সেখান থেকে আরনিং করতে পারবেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button