প্রযুক্তি

২০২২ সালের স্মার্টফোন থেকে কম্পিউটারে ডাটা ট্রান্সফার পদ্ধতি – জেনে নিন

স্মার্টফোন থেকে কম্পিউটারে অনেক সময় ডেটা ট্রান্সফার এর প্রয়োজন হয়ে থাকে কিন্তু সঠিক ভাবে ডাটা ট্রান্সফার করতে না জানায় অনেকেই ডাটা ট্রান্সফার করতে পারেন না সঠিক ভাবে। তাই ডাটা ট্রান্সফার করার আগে অবশ্যই ডাটা ট্রান্সফার সম্পর্কে জানতে হবে এবং আপনার ডিভাইস অনুসারে ডাটা ট্রান্সফার করতে হবে। স্মার্টফোন টু কম্পিউটার/পিসি তে ডাটা ট্রান্সফার করার ক্ষেত্রে কয়েকটি কার্যকরী পদ্ধতি রয়েছে। স্পিড এবং ডিভাইস অনুসারে আপনি যেকোনো একটি পদ্ধতি ব্যাবহার করে ডাটা ট্রান্সফার করে ফেলতে পারবেন খুব সহজে।

স্মারটফোনে স্টরেজ কম থাকায় অথবা অনেক সময় বড় ফাইল ট্রান্সফার এর ক্ষেত্রে কিংবা ছবি সংরক্ষনে অনেকেই তাদের ডাটা রাখতে চায় পিসি বা কম্পউটারে। আবার অনেকে কম্পিউটার থেকে ফাইল স্মারটফোনে নিতে চান সেক্ষেত্রেও নিচের পদ্ধতিগুলো ব্যাবহার করতে পারবেন । 

 

স্মারটফোন থেকে কম্পিউটারে কয়েকটি পদ্ধতি ব্যাবহার করা যায় । ব্লুটুথ ব্যাবহার , ইউএসবি ব্যাবহার কিংবা কিছু অ্যাপ্লিকেশন ব্যাবহার ব্যাবহার করে ডাটা সহজেই ট্রান্সফার করা যায়। আপনার ডাটা সুরক্ষিত এবং  দ্রুত ট্রান্সফার করতে নিচের পদ্ধতিগুলো ব্যাবহার করুন।

 

স্মার্টফোন এবং কম্পিউটারের মধ্যে ডেটা ট্রান্সফারের পদ্ধতি

মুভি লাভারদের অথবা যারা অনেক বেশী ভিডিও এডিট করেন কিংবা ছবি তুলে তাদের জন্য তাদের ফোনের স্টোরেজ অনেক সময় যথেষ্ট হয় না। অনেকে ফাইল ট্রান্সফার করে পিসিতে নিয়ে সেই ফাইল এডিট করেন। টেক্সট ফাইল থেকে শুরু করে ভিডিও ফাইল সমূহ ট্রান্সফার করা যেতে পারে স্মার্টফোন থেকে কম্পিউটারে। কয়েকটি উপায়ে স্মার্ট ফোন থেকে কম্পিউটারে ফাইল ট্রান্সফার করা যেতে পারে। যারা ভিডিও এডিট কিংবা ছবি এডিট করে থাকেন তাদের জন্য ফাইল ট্রান্সফারের পদ্ধতি জানা খুবই জরুরী। ভিডিও এডিটের ক্ষেত্রে ফাইলটি যেহেতু অনেক বড় হয় সে কারণে ফাইলটি কম্পিউটারে ট্রানস্ফার করে নিয়ে এডিট পড়ার সময় পদ্ধতি গুলো কাজে আসে।

আরো দেখুনঃ  ২০২২ সালের সেরা ৫ টি গেমিং ফোন

অ্যান্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ ডিভাইসের মধ্যে ফাইল ট্রানস্ফার

অ্যান্ড্রয়েড উইন্ডোজ ডিভাইসের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফার করার জন্য আপনার উইন্ডোজ পিসিটিকে অবশ্যই উইন্ডোজ এক্সপি, উইন্ডোজ সেভেন, উইন্ডোজ টেন অথবা উইন্ডোজ ইলেভেন সাপোর্ট করতে হবে।

 

ব্লুটুথ ব্যবহার

ব্লুটুথ ব্যবহার করে ছোট ফাইল গুলো ট্রান্সফার করা যায় অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে উইন্ডোজ পিসিতে। ছোট ফাইল যেমন টেক্সট ফাইল অথবা ডকুমেন্টারি ফাইল গুলো ব্যবহার করে স্থানান্তর করা যেতে পারে। তবে বড় ফাইলগুলোর ক্ষেত্রে অবশ্যই ব্লুটুথ পদ্ধতিটি সময় সাপেক্ষ। ব্লুটুথ শেয়ার এর ক্ষেত্রে দুইটি ডিভাইসেই ব্লুটুথ কানেকশন অন করতে হবে। যে ফাইলটি ট্রান্সফার করতে চাচ্ছেন সে ফাইল সিলেক্ট করে ট্রান্সফার মাধ্যম ব্লুটুথ বা শেয়ার মাধ্যম ব্লুটুথ সিলেক্ট করতে হবে। অ্যাভেলেবল ডিভাইস এর ক্ষেত্রে আপনার কম্পিউটার অথবা স্মার্টফোনের নাম শো করলে সেটি সিলেক্ট করতে হবে এবং পারমিশন দিতে হবে। পার্মিশন দেওয়ার পরপরই ব্লুটুথ শেয়ার শুরু হবে। ফাইল কতটুকু শেয়ার হয়েছে সেটি দেখা যাবে নোটিফিকেশন বার থেকে।

ইউএসবি ক্যাবল

ইউএসবি ক্যাবলের মাধ্যমে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন থেকে উইন্ডোজ পিসিতে ফাইল ট্রান্সফার করার সবচেয়ে সোজা এবং নিরাপদ । এর জন্য ব্যবহার করতে হবে একটি ভালো মানের ইউএসবি ক্যাবল । ইউএসবি ক্যাবল ভালো মানের হলে স্পিড ভালো পাওয়া যায়।
ইউএসবি ক্যাবল এর একটি কম্পিউটারে প্লাগিন করতে হবে অন্যটি স্মার্টফোনে লাগাতে। ইউএসবি এ অথবা usb-c দিয়ে ফাইল ট্রান্সফার করার। পুরাতন সকল অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ইউএসবি এ অথবা স্ট্যান্ডার্ড ইউএসবি ক্যাবল ছিল। বর্তমানে বেশিরভাগ স্মার্টফোনগুলো ইউএসবি type-c ক্যাবল অফার করে। ইউএসবি কেবল প্লাগ-ইন করে পিসি থেকে আপনার ডিভাইসে প্রবেশ করতে হবে। এরপরে যে ফাইল ট্রান্সফার করতে যাচ্ছেন সেটি কপি করে অথবা ড্রাগ করে আপনার কম্পিউটারে নিতে হবে।

শেয়ার ইট

শেয়ারইট বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় ফাইল ট্রান্সফার সিস্টেম। শেয়ারইট এর মাধ্যমে ফাইল ট্রান্সফার করার জন্য যে দুটি ডিভাইসের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফার করবেন সে দুইটি ডিভাইসেই শেয়ার ইট ইন্সটল থাকা লাগবে। শেয়ারইট অ্যাপ্লিকেশন ওপেন করতে হবে উইন্ডোজ এবং অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে। এরপরে শেয়ার ইট থেকে ফাইল ট্রান্সফার করবেন সেটি সিলেক্ট করে সেন্ড করতে হবে এবং অপর প্রান্ত ডিভাইসটিকে রিসিভ করতে রিসিভ করতে হবে। এর মাধ্যমে কেবল ছাড়া খুব সহজে ফাইল ট্রান্সফার করা যায়।

অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ডিভাইসের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফার

অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ডিভাইসের মধ্যে ফাইল ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে ওয়াইফাই ব্যবহার করা যায়। অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ও আইওএস ডিভাইস এ ফাইল ট্রান্সফার করতে একটি অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করা যেতে পারে। অথবা শেয়ারইট অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button